আজ ৩রা বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই এপ্রিল ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

করোনাযুদ্ধে কনস্টেবল জালাল উদ্দিন খোকার মৃত্যুতে আইজিপি’র শোক বার্তা।

চলমান করোনাযুদ্ধের এক সম্মুখযোদ্ধা বাংলাদেশ পুলিশের গর্বিত সদস্য কনস্টেবল জালাল উদ্দিন খোকা করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর ঘটনায় বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ, বিপিএম (বার) গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।এক শোকবাণীতে আইজিপি বলেন, “দেশে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ার প্রথম দিন থেকেই বাংলাদেশ পুলিশ করোনা প্রতিরোধের সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে জনগণের পাশে থেকে নিরলস কাজ করছে। করোনা প্রতিরোধে জনগণকে সেবা দিতে গিয়ে আজ জীবন দিলেন বীর পুলিশ সদস্য জালাল উদ্দিন খোকা। তিনি দেশ ও জনগণের কল্যাণে জীবন দিয়ে জনসেবা এবং ত্যাগের এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করে গেছেন। আমি এ গর্বিত পুলিশ সদস্যের প্রতি শ্রদ্ধা জানাই।”আইজিপি জালাল উদ্দিন খোকার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। তাদেরকে সান্ত্বনা দিয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশ পুলিশ সর্বোতভাবে আপনাদের পাশে থাকবে। তিনি মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।”আইজিপি আরও বলেন, “প্রিয় সহকর্মীকে হারানোর শোককে শক্তিতে পরিণত করে আমরা দেশ ও জনগণের সেবায় অবিচল থাকবো, দৃঢ় মনোবলের সাথে এগিয়ে যাবো।”আইজিপি বলেন,করোনাক্রান্ত পু‌লিশ সদস্য‌দের সু‌চি‌কিৎসা ও সেবায‌ত্নে স‌র্বোচ্চ অগ্রা‌ধিকা‌র দেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতাল ও বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতাল ছাড়াও রাজধানী ঢাকা ও বিভাগীয় শহরে বেসরকারি হাসপাতালে পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ইতোমধ্যে ১১৬ জন পুলিশ সদস্য সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।করোনাযুদ্ধে আত্মউৎসর্গকারী কনস্টবল জালাল উদ্দিন খোকা ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক পূর্ব বিভাগে কর্মরত ছিলেন।করোনাভাইরাসের উপসর্গ থাকায় তার করোনা পরীক্ষা করা হয় ২৬ এপ্রিল। পরীক্ষায় তার করোনা ভাইরাস (কভিড-১৯) পজিটিভ আসে। তিনি রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) স্থানান্তর করা হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ শনিবার (৯ মে ২০২০ খ্রি.) সন্ধ্যা ৭.১০ মিনিটে তিনি শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর